1. admin@news7bangla.net : admin :
মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ১২:৫৬ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
জানুয়ারিতে ডেঙ্গুতে ১৪ মৃত্যু, ৯ জনই নারী জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম প্রকাশিত: ১০:২৬, ১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ আপডেট: ১০:২৮, ১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ জানুয়ারিতে ডেঙ্গুতে ১৪ মৃত্যু, ৯ জনই নারী বছরের প্রথম মাস জানুয়ারিতে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে সারাদেশে মোট ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। যার মধ্যে ঢাকায় মারা গেছেন ৮ জন, আর ঢাকার বাইরে ৬ জন। এ ১৪ জনের মধ্যে ৯ জনই নারী, পুরুষ ৫ জন। একই সময়ে সারাদেশে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন এক হাজার ৫৫ জন। Google news বৃহস্পতিবার (১ ফেব্রুয়ারি) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের ডেঙ্গু বিষয়ক নিয়মিত প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে। প্রতিবেদনে বলা হয়, জানুয়ারিতে ঢাকায় ডেঙ্গুতে মৃত্যুর সংখ্যা বেশি হলেও ঢাকার বাইরে আক্রান্ত হওয়ার সংখ্যা বেশি। ঢাকায় জানুয়ারিতে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন ৩৫৮ জন, আর ঢাকার বাইরে আক্রান্ত হওয়া রোগীর সংখ্যা প্রায় দ্বিগুণ, ৬৯৭ জন। জানুয়ারি মাসে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ৯২৮ জন ডেঙ্গু রোগী। মোট মৃত্যুর হার ১.৩ শতাংশ। জানুয়ারিতে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে নারীর সংখ্যা ৩৭৮ জন, আর পুরুষের সংখ্যা ৬৭৭ জন। তবে মারা যাওয়া পুরুষের চেয়ে নারীর সংখ্যা বেশি। এ মাসে ডেঙ্গুতে ৯ জন নারীর মৃত্যু হয়েছে, পুরুষের সংখ্যা ৫ জন। মারা যাওয়া নারীদের মধ্যে ৪ জনের বয়স ৪৬-৫০ এর মধ্যে। প্রসঙ্গত, গত ২০২৩ সালে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতাল ভর্তি হন রেকর্ড তিন লাখ ২১ হাজার ১৭৯ জন। তাদের মধ্যে ঢাকার বাসিন্দা এক লাখ ১০ হাজার ৮ জন এবং ঢাকার বাইরের দুই লাখ ১১ হাজার ১৭১ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন এক হাজার ৭০৫ জন। আর ২০২২ সালে ডেঙ্গুতে ২৮১ জন মারা যান। গুগলের শেয়ারের দরপতন দেশে একমাস কোচিং বন্ধ আবারও প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেস সচিব হলেন হাসান জাহিদ মেট্রোরেলে চড়ুন তবে নিয়মগুলো মানুন মেট্রোরেল সহকারী শিক্ষক নেবে বিএএফ শাহীন কলেজ ঢাকা নৌবাহিনীতে চাকরি, আবেদন অনলাইনে ‘বোটানিক্যাল গার্ডেনের আরো রক্ষণাবেক্ষণ করা জরুরি’ : মো.আজহারুল ইসলাম বিড়াল পুষলে যেসব উপকার পাবেন দোগারি পর্বতে বাংলাদেশের প্রথম অভিযান

আতঙ্ক না ছড়ালে আরও বেশি ভোট পড়ত: শামীম ওসমান

নিউজ ৭ বাংলা ডেস্ক :
  • প্রকাশের সময় : সোমবার, ৮ জানুয়ারি, ২০২৪
  • ৯২ বার পঠিত

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি: নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সংসদ সদস্য এ কে এম শামীম ওসমান বলেছেন, আমি আজ সারা দিন কোথাও বের হইনি। আমি সারা দিন কবরস্থানেই ছিলাম।

তারপর পৌনে তিনটার সময় আদর্শ স্কুলে গিয়ে ভোটটা দেই। এর আগে কয়েকটা কল পাই।
নারায়ণগঞ্জের রিটার্নিং কর্মকর্তার কল যদি না পেতাম তাহলে বিশাল সমস্যা হয়ে যেত। নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন জায়গায় টেলিফোন নিয়ে কেন্দ্রে ঢুকতে দিচ্ছিল না।
এমন প্রায় হাজার হাজার ভোটার ব্যাক করেছেন। কিছু পোশাকের লোক অনৈতিক ডিমান্ড করেছেন সেন্টারগুলোতে।
আমরা তাদের খুঁজে বের করার চেষ্টা করেছি।
রোববার (৭ জানুয়ারি) বেসরকারি ফলাফলে বিজয়ী হবার পর গণমাধ্যম কর্মীদের প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করতে গিয়ে এসব কথা বলেন তিনি।

শামীম ওসমান বলেন, জুডিশিয়াল ডিপার্টমেন্টের কেউ কেউ চেষ্টা করেছেন আমার এলাকায় উত্তেজনা বৃদ্ধি করে দেওয়ার। তারা স্বাধীনতাবিরোধী পরিবার থেকে এসেছেন। প্রশাসনে তারা আছে চাকরি করতে পারেন। তবে তারা উত্তেজনা সৃষ্টি করতে ত্রুটি রাখেননি। সিনিয়র নেতাদের সাথে এমন আচরণ করেছেন সামরিক আমলে এমনটা করলেও উত্তেজনা ছড়িয়ে যেত। আমি গতকালই নেতাকর্মীদের বলে দিয়েছিলাম উস্কানি দেওয়া হতে পারে। এগুলো না হলে ভোট আরও সাত-আট পার্সেন্ট বাড়ত।

তিনি বলেন, গতকাল রাতে ভোটকেন্দ্রে হামলা করেছে। জনগণই ওদের প্রতিহত করেছে। রাতে স্লোগান দিয়েছে ভোটকেন্দ্রে যাবে যারা লাশ হয়ে ফিরবে তারা। তারেকের নামে ও লোকাল নেতার নামে স্লোগান দিচ্ছিল। আমি অনুরোধ করব, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে। এমন আতঙ্ক না ছড়ালে আরও বেশি ভোট পড়ত।

প্রশাসনের সিনিয়র কর্মকর্তারা ভালো কাজ করেছেন উল্লেখ করে শামীম ওসমান বলেন, তবে কিছু লোক ডিপার্টমেন্টকে বদনাম করতে এ কাজগুলো করেছে। আজ নির্বাচন কমিশনের অধীনে দেশ, কাল সরকারের অধীনে থাকবে। ওদের ফাইন্ডআউট করতে হবে। ওরা সব সময় সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য হুমকি।

নির্বাচন কমিশন অক্লান্ত পরিশ্রম করে নির্বাচন করেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমরা উস্কানিতে সাড়া দিলে নির্বাচন নষ্ট হতে পারত। আমরা আশা করি এর ন্যায়বিচার পাব। ওদের নেতারা অনেক কিছু বুঝিয়েছিল। হতাশা থেকে অনেক সময় মানুষ খারাপ কাজ করে।

শামীম ওসমান আরও বলেন, এই সন্ত্রাসী সংগঠন মুসলিম লীগের যে অবস্থা হয়েছে, আগামী দুই-তিন বছরে সেই অবস্থা হবে। এই নেতা তার কর্মীদের হাতেই মার খাবে। তার ননসেন্স কাজের জন্য এদের সবার কনভিকশন হবে। তারা তার নির্দেশেই তো এ কাজ করেছে। কাঁদবে কি তারেক রহমান? আমরা চাইলেও ওদের সেভ করতে পারব না। আদালত তো প্রমাণ দেখছে।

Facebook Comments Box
সংবাদটি শেয়ার করুন :
এ জাতীয় আরও খবর
জানুয়ারিতে ডেঙ্গুতে ১৪ মৃত্যু, ৯ জনই নারী জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম প্রকাশিত: ১০:২৬, ১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ আপডেট: ১০:২৮, ১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ জানুয়ারিতে ডেঙ্গুতে ১৪ মৃত্যু, ৯ জনই নারী বছরের প্রথম মাস জানুয়ারিতে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে সারাদেশে মোট ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। যার মধ্যে ঢাকায় মারা গেছেন ৮ জন, আর ঢাকার বাইরে ৬ জন। এ ১৪ জনের মধ্যে ৯ জনই নারী, পুরুষ ৫ জন। একই সময়ে সারাদেশে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন এক হাজার ৫৫ জন। Google news বৃহস্পতিবার (১ ফেব্রুয়ারি) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের ডেঙ্গু বিষয়ক নিয়মিত প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে। প্রতিবেদনে বলা হয়, জানুয়ারিতে ঢাকায় ডেঙ্গুতে মৃত্যুর সংখ্যা বেশি হলেও ঢাকার বাইরে আক্রান্ত হওয়ার সংখ্যা বেশি। ঢাকায় জানুয়ারিতে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন ৩৫৮ জন, আর ঢাকার বাইরে আক্রান্ত হওয়া রোগীর সংখ্যা প্রায় দ্বিগুণ, ৬৯৭ জন। জানুয়ারি মাসে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ৯২৮ জন ডেঙ্গু রোগী। মোট মৃত্যুর হার ১.৩ শতাংশ। জানুয়ারিতে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে নারীর সংখ্যা ৩৭৮ জন, আর পুরুষের সংখ্যা ৬৭৭ জন। তবে মারা যাওয়া পুরুষের চেয়ে নারীর সংখ্যা বেশি। এ মাসে ডেঙ্গুতে ৯ জন নারীর মৃত্যু হয়েছে, পুরুষের সংখ্যা ৫ জন। মারা যাওয়া নারীদের মধ্যে ৪ জনের বয়স ৪৬-৫০ এর মধ্যে। প্রসঙ্গত, গত ২০২৩ সালে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতাল ভর্তি হন রেকর্ড তিন লাখ ২১ হাজার ১৭৯ জন। তাদের মধ্যে ঢাকার বাসিন্দা এক লাখ ১০ হাজার ৮ জন এবং ঢাকার বাইরের দুই লাখ ১১ হাজার ১৭১ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন এক হাজার ৭০৫ জন। আর ২০২২ সালে ডেঙ্গুতে ২৮১ জন মারা যান।

ফেসবুকে আমরা