1. admin@news7bangla.net : admin :
মঙ্গলবার, ০৫ মার্চ ২০২৪, ১২:২৩ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম :
জানুয়ারিতে ডেঙ্গুতে ১৪ মৃত্যু, ৯ জনই নারী জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম প্রকাশিত: ১০:২৬, ১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ আপডেট: ১০:২৮, ১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ জানুয়ারিতে ডেঙ্গুতে ১৪ মৃত্যু, ৯ জনই নারী বছরের প্রথম মাস জানুয়ারিতে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে সারাদেশে মোট ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। যার মধ্যে ঢাকায় মারা গেছেন ৮ জন, আর ঢাকার বাইরে ৬ জন। এ ১৪ জনের মধ্যে ৯ জনই নারী, পুরুষ ৫ জন। একই সময়ে সারাদেশে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন এক হাজার ৫৫ জন। Google news বৃহস্পতিবার (১ ফেব্রুয়ারি) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের ডেঙ্গু বিষয়ক নিয়মিত প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে। প্রতিবেদনে বলা হয়, জানুয়ারিতে ঢাকায় ডেঙ্গুতে মৃত্যুর সংখ্যা বেশি হলেও ঢাকার বাইরে আক্রান্ত হওয়ার সংখ্যা বেশি। ঢাকায় জানুয়ারিতে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন ৩৫৮ জন, আর ঢাকার বাইরে আক্রান্ত হওয়া রোগীর সংখ্যা প্রায় দ্বিগুণ, ৬৯৭ জন। জানুয়ারি মাসে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ৯২৮ জন ডেঙ্গু রোগী। মোট মৃত্যুর হার ১.৩ শতাংশ। জানুয়ারিতে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে নারীর সংখ্যা ৩৭৮ জন, আর পুরুষের সংখ্যা ৬৭৭ জন। তবে মারা যাওয়া পুরুষের চেয়ে নারীর সংখ্যা বেশি। এ মাসে ডেঙ্গুতে ৯ জন নারীর মৃত্যু হয়েছে, পুরুষের সংখ্যা ৫ জন। মারা যাওয়া নারীদের মধ্যে ৪ জনের বয়স ৪৬-৫০ এর মধ্যে। প্রসঙ্গত, গত ২০২৩ সালে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতাল ভর্তি হন রেকর্ড তিন লাখ ২১ হাজার ১৭৯ জন। তাদের মধ্যে ঢাকার বাসিন্দা এক লাখ ১০ হাজার ৮ জন এবং ঢাকার বাইরের দুই লাখ ১১ হাজার ১৭১ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন এক হাজার ৭০৫ জন। আর ২০২২ সালে ডেঙ্গুতে ২৮১ জন মারা যান। গুগলের শেয়ারের দরপতন দেশে একমাস কোচিং বন্ধ আবারও প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেস সচিব হলেন হাসান জাহিদ মেট্রোরেলে চড়ুন তবে নিয়মগুলো মানুন মেট্রোরেল সহকারী শিক্ষক নেবে বিএএফ শাহীন কলেজ ঢাকা নৌবাহিনীতে চাকরি, আবেদন অনলাইনে ‘বোটানিক্যাল গার্ডেনের আরো রক্ষণাবেক্ষণ করা জরুরি’ : মো.আজহারুল ইসলাম বিড়াল পুষলে যেসব উপকার পাবেন দোগারি পর্বতে বাংলাদেশের প্রথম অভিযান

নির্ভয়ে কেন্দ্রে এসে ভোট দেবেন: সিইসি

নিউজ ৭ বাংলা ডেস্ক :
  • প্রকাশের সময় : শনিবার, ৬ জানুয়ারি, ২০২৪
  • ৩৮ বার পঠিত

নিউজ ডেস্ক : দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ভোটারদের উদ্দেশ্যে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেছেন, নাশকতা ও সহিংসতার কতিপয় সাম্প্রতিক ঘটনায় আমরা উদ্বিগ্ন। তারপরও অনুরোধ করছি আপনারা সব উদ্বেগ, উৎকণ্ঠা ও অস্বস্তি পরাভূত করে নির্ভয়ে কেন্দ্রে এসে ভোট দিয়ে নাগরিক অধিকার প্রয়োগ করবেন।
শনিবার (৬ জানুয়ারি) নির্বাচনের আগের দিন জাতির উদ্দেশ্যে দেওয়া ভাষণে তিনি এ আহ্বান জানান। রোববার (৭ জানুয়ারি) সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীনভাবে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

নির্বাচনে ২৮ দল, প্রতিদ্বন্দ্বিতাহীন নয়:
সিইসি বলেন, সবার সমন্বিত সহযোগিতার মাধ্যমেই কেবল নির্বাচন সুষ্ঠু, অবাধ, নিরপেক্ষ ও অংশগ্রহণমূলক হয়ে থাকে। রাজনৈতিক দলগুলো গণতান্ত্রিক চেতনায় উদ্বুদ্ধ হয়ে প্রার্থী দিয়ে নির্বাচনে কার্যকরভাবে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করলে, নির্বাচন অধিক পরিশুদ্ধ ও অর্থবহ হয়।

কিন্তু নির্বাচনের প্রাতিষ্ঠানিক পদ্ধতিগত প্রশ্নে মত-বিরোধের কারণে এবারের নির্বাচনে কাঙ্ক্ষিত সেরকম রাজনৈতিক অংশগ্রহণ ও প্রতিদ্বন্দ্বিতা হচ্ছে না। নির্বাচনী সার্বজনীনতা প্রত্যাশিত মাত্রায় হয়নি।
তারপরও ২৮টি দল নির্বাচনে অংশ নিচ্ছে। সর্বমোট ১৯৭১ জন (১৯৬৯ জন) প্রার্থী ২৯৯ আসনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ফলে নির্বাচনকে প্রতিদ্বন্দ্বিতাহীন ও অংশগ্রহণমূলক নয় মর্মে আখ্যায়িত করা যাবে না।
অনিয়ম, দায়িত্বহীনতায় কঠোর ব্যবস্থা:
প্রধান নির্বাচন কমিশনার বলেন, উৎসবমুখর পরিবেশে উৎসাহ ও উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে নির্বাচনী প্রচারণা শেষ হয়েছে। এখন কেবল ভোট গ্রহণ শুরুর অপেক্ষা। নির্বাচনী দায়িত্বে নিয়োজিত সব কর্মকর্তাকেও আইন ও বিধি-বিধান যথাযথভাবে অনুধাবন, প্রতিপালন ও প্রয়োগ করে সততা ও নিষ্ঠার সাথে নির্বাচন পরিচালনার সার্বিক বিষয়ে আরোপিত দায়িত্বপালন করতে হবে। দায়িত্ব পালনে অবহেলা, শৈথিল্য, অসততা ও ব্যত্যয় সহ্য করা হবে না।

কোনো প্রার্থী বা প্রার্থীর পক্ষে জাল ভোট, ভোট কারচুপি, ব্যালট ছিনতাই, অর্থের লেনদেন ও পেশীশক্তির সম্ভাব্য ব্যবহার কঠোরভাবে প্রতিহত করা হবে। তথ্য প্রমাণ পাওয়া গেলে প্রার্থিতা তাৎক্ষণিক বাতিল করা হবে। প্রয়োজনে কেন্দ্র বা নির্বাচনী এলাকার ভোট গ্রহণ সামগ্রিকভাবে বন্ধ করে দেওয়া হবে।

রাজনৈতিক নেতৃত্বকে আন্তরিক হওয়ার আহ্বান:
কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেন, মতভেদ থেকে সংঘাত ও সহিংসতা কাম্য নয়। কিন্তু পরিতাপের বিষয় নাশকতা ও সহিংসতা একেবারেই হচ্ছে না তা বলা যাচ্ছে না। রাষ্ট্রীয় ধন-সম্পদের ক্ষতিসাধনের পাশাপাশি মানুষ আহত-নিহত হচ্ছে। এহেন পরিস্থিতির স্থায়ী সমাধান ও অবসান প্রয়োজন। রাজনৈতিক নেতৃত্বকে এ বিষয়ে আন্তরিকভাবে উদ্যোগী হতে হবে। আজকে না হলেও ভবিষ্যতের জন্য।

নির্বাচন বর্জনকারী দলসমূহ সহিংস পন্থা পরিহার করে কেবল শান্তিপূর্ণ পন্থায় জনগণকে নির্বাচন বর্জনের আহ্বান জানাবে মর্মে প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেছে। এতে জনমনে আস্থা সঞ্চারিত হয়েছিল। ঘোষিত হরতাল অবরোধের মধ্যে সহিংসতা ও নাশকতার ঘটনা দৃশ্যমান হচ্ছে।

ভোটাধিকার প্রয়োগের আহ্বান:
সিইসি আরও বলেন, নাশকতা ও সহিংসতার কতিপয় সাম্প্রতিক ঘটনায় আমরা উদ্বিগ্ন। তারপরও অলঙ্ঘনীয় সাংবিধানিক দায়িত্বের অংশ হিসেবে জনগণকে অনুরোধ করছি আপনারা সব উদ্বেগ, উৎকণ্ঠা ও অস্বস্তি পরাভূত করে নির্ভয়ে আনন্দমুখর পরিবেশে ভোটকেন্দ্রে এসে অবাধে মূল্যবান ভোটাধিকার প্রয়োগ করে মূল্যবান নাগরিক দায়িত্ব পালন করবেন।

গণমাধ্যম ও পর্যবেক্ষকদের সহযোগিতা কামনা:
সরকারের সাবেক এই সিনিয়র সচিব বলেন, দৃশ্যমানতার মাধ্যমে নির্বাচন প্রক্রিয়ার স্বচ্ছতা ফুটিয়ে তোলা গেলে নির্বাচনের বিশুদ্ধতা ও নিরপেক্ষতা প্রশ্নে জনমনে আস্থা সৃষ্টিতে তা সহায়ক হয়। এক্ষেত্রে গণমাধ্যম ও নির্বাচন পর্যবেক্ষকদের ভূমিকা প্রণিধানযোগ্য। তাই দেশি ও বিদেশি গণমাধ্যম ও পর্যবেক্ষকদের সহযোগিতা আমরা একান্তভাবে কামনা করছি।

নির্বাচন পর্যবেক্ষণে প্রায় ২৩ হাজার দেশি ও প্রায় ২০০ বিদেশি পর্যবেক্ষক কাজ করবেন। পর্যাপ্ত সংখ্যক দেশি ও বিদেশি সংবাদকর্মীও নির্বাচন পর্যবেক্ষণ এবং চিত্র ও তথ্য সংগ্রহে মাঠে অবস্থান করবেন।

ধারণ করা ভাষণটি সন্ধ্যায় বাংলাদেশ টেলিভিশনে প্রচার করা হয়।

Facebook Comments Box
সংবাদটি শেয়ার করুন :
এ জাতীয় আরও খবর
জানুয়ারিতে ডেঙ্গুতে ১৪ মৃত্যু, ৯ জনই নারী জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক || রাইজিংবিডি.কম প্রকাশিত: ১০:২৬, ১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ আপডেট: ১০:২৮, ১ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ জানুয়ারিতে ডেঙ্গুতে ১৪ মৃত্যু, ৯ জনই নারী বছরের প্রথম মাস জানুয়ারিতে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে সারাদেশে মোট ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। যার মধ্যে ঢাকায় মারা গেছেন ৮ জন, আর ঢাকার বাইরে ৬ জন। এ ১৪ জনের মধ্যে ৯ জনই নারী, পুরুষ ৫ জন। একই সময়ে সারাদেশে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন এক হাজার ৫৫ জন। Google news বৃহস্পতিবার (১ ফেব্রুয়ারি) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের ডেঙ্গু বিষয়ক নিয়মিত প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে। প্রতিবেদনে বলা হয়, জানুয়ারিতে ঢাকায় ডেঙ্গুতে মৃত্যুর সংখ্যা বেশি হলেও ঢাকার বাইরে আক্রান্ত হওয়ার সংখ্যা বেশি। ঢাকায় জানুয়ারিতে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছেন ৩৫৮ জন, আর ঢাকার বাইরে আক্রান্ত হওয়া রোগীর সংখ্যা প্রায় দ্বিগুণ, ৬৯৭ জন। জানুয়ারি মাসে সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ৯২৮ জন ডেঙ্গু রোগী। মোট মৃত্যুর হার ১.৩ শতাংশ। জানুয়ারিতে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীদের মধ্যে নারীর সংখ্যা ৩৭৮ জন, আর পুরুষের সংখ্যা ৬৭৭ জন। তবে মারা যাওয়া পুরুষের চেয়ে নারীর সংখ্যা বেশি। এ মাসে ডেঙ্গুতে ৯ জন নারীর মৃত্যু হয়েছে, পুরুষের সংখ্যা ৫ জন। মারা যাওয়া নারীদের মধ্যে ৪ জনের বয়স ৪৬-৫০ এর মধ্যে। প্রসঙ্গত, গত ২০২৩ সালে ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে হাসপাতাল ভর্তি হন রেকর্ড তিন লাখ ২১ হাজার ১৭৯ জন। তাদের মধ্যে ঢাকার বাসিন্দা এক লাখ ১০ হাজার ৮ জন এবং ঢাকার বাইরের দুই লাখ ১১ হাজার ১৭১ জন। এর মধ্যে মারা গেছেন এক হাজার ৭০৫ জন। আর ২০২২ সালে ডেঙ্গুতে ২৮১ জন মারা যান।

ফেসবুকে আমরা